বাংলাদেশে এই প্রথম স্বল্প সময়ে- “বিশ্বমানের গ্রাফিক্স ডিজাইন বেসিক কোর্স” বিশ্ববিখ্যাত ব্রান্ডের হাই-প্রোফাইল ক্রিয়েটিভ পার্সোনাল আর চারুকলার ক্রিয়েটিভ গ্রাফিক স্পেশালিস্টের সমন্বয়ে প্রোজেক্ট ভিত্তিক স্পেশাল ক্লাস-

 

 

রেজিস্ট্রেশন করতে ভিজিট করুনঃ http://datavisiontraining.com/

 

বেসিক কোর্সঃ >

কোর্স ফিঃ ৬,০০০ টাকা (১৫% ভ্যাটসহ)

কোর্সের মেয়াদঃ ২ সপ্তাহ

১ম ব্যাচ–> সকাল ১১টা – দুপুর ১:৩০ মিনিট পর্যন্ত

২য় ব্যাচ–> সন্ধ্যা ৬টা- রাত ৮:৩০ মিনিট পর্যন্ত

সময়ঃ ২:৫ ঘণ্টা করে সপ্তাহে ৩ দিন (সোমবার, মঙ্গলবার ও বুধবার)

 

ক্লাস ক্যাম্পাসঃ নিজস্ব ল্যাব, ধানমন্ডি।

* পৃথক পৃথক ক্লাসের ক্ষেত্রে কোর্স ফি, সময় এবং অন্যান্য বিষয়াদি আলোচনা সাপেক্ষে। বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুনঃ ডাটাভিশন ট্রেনিং, হাউজ নম্বর – ১৫এ, রোড নম্বর – ৪, ধানমণ্ডি, ঢাকা।

ফোন- ০২৯৬১৪৪৫৯

হটলাইন- ০১৮৪৬৩০০০০০

 

ভর্তি চলবেঃ ২৫শে আগস্ট ২০১৮ পর্যন্ত

 

 

এইসব কোর্সে অংশগ্রহণ করতে যা যা জানা থাকা প্রয়োজনঃ

 

১) কম্পিউটার বেসিক নলেজ

২) মাইক্রোসফট অফিস ওয়ার্ড

৩) ইন্টারনেট ব্যবহার

৪) বয়স ১৬ বছর থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত

৫) কম্পিউটার চালনায় পারদর্শী হতে হবে।

 

আমাদের কথাঃ ডাটাভিশন ট্রেনিং সেরকমই উদ্যোগ নিয়ে কাজ করছে যাতে একজন ফ্রেশার যিনি ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে চান তাঁর কাজের মানদণ্ড হবে বিশ্বমানের। এজন্য মাসের পর মাস প্রশিক্ষণের প্রয়াজন হয় না। এটা আমরা পরিক্ষিত। যেখানে যতটুকু শেখা প্রয়োজন, আমরা ততটুকুই শেখাই। ভারি ভারি কমান্ড প্রয়োগ করে মাথা নষ্ট করা ছাড়া কিছুই না। শুধু ফটোশপ আর ইলাস্ট্রেট্র জানা থাকলেই ক্রিয়েটভ ডিজাইনার হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া সহজ নয়, ক্রিয়েটিভ ডিজাইনার হতে কালার কনসেপ্ট ও টাইপোগ্রাফির উপর যথেষ্ট ধারণা থাকতে হয়। এই সব ধারণা শুধু কোর্স করেই হবে না দীর্ঘ দিন কাজ করতে করতে তৈরি হয়। আমরা সেই সব বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি এবং এ ব্যাপারে ডাটাভিশন ট্রেনিং টিম পুরোপুরি সহযোগিতা করে থাকে। এই কোর্স শিখাতে যে যে সফটওয়্যার ব্যবহার করা হবেঃ

১) Adobe Photoshop

২) Adobe Illustrator

৩) Microsoft Power Point

 

 

কেন আমাদের গ্রাফিক কোর্সকে বিশ্বমানের কোর্স বলছিঃ

 

 

বিশ্বমান বলতে বোঝাচ্ছি আন্তর্জাতিক ফ্রি-ল্যান্স মার্কেট প্লেসগুলোতে যে ধরনের কাজের স্বীকৃতি আছে সেই মানের কাজ এই কোর্সে নিশ্চয়তা দিচ্ছি। মান-সম্মত ডিজাইনে থাকে ব্যাকগ্রাউন্ড কালার, ফন্ট বা টেক্সটের ব্যবহার, কালার কম্বিনেশনে থাকে সুনিপুণ হাতের ছোয়া। যা অনেক ক্ষেত্রেই তা আমাদের দেশে ব্যবহার হয় না। এসব বিষয়ের উপর আমরা গুরুত্ব দিয়ে থাকি। প্রশিক্ষকদের পরিচিতিঃ আমাদের কোর্সে যারা মেন্টর/প্রশিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন তাদের সুযোগ হয়েছে বিভিন্ন দেশের নৃতাত্ত্বিক জাতিগোষ্ঠীর গ্রাফিক্যাল ডিজাইন নিয়ে কাজ করার। একই সাথে রয়েছে দেশীয় ও আন্তজার্তিক প্রতিষ্ঠানে গ্রাফিক্যাল ক্রিয়েটিভ ফিল্ডে কাজ করার দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতা।

 

>>আমাদের সিনিয়র প্রশিক্ষক যিনি দীর্ঘ ১১ বছর সফলভাবে বিশ্বখ্যাত ব্রান্ড সনি বাংলাদেশ এর ডিজাইন ইন্ডাস্ট্রিতে সর্বোচ্চ প্রোফাইলধারী সিনিয়র গ্রাফিক ডিজাইনার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গ্রাফিক্সকে ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ক্ষেত্রে যতভাবে ব্যবহার করা যায় তার সকল দিক তিনি এক্সপিরিমেন্ট করেছেন। তিনি প্রোডাক্টের ‚র“ অবস্থা থেকে এর কভারেজ, ব্রান্ডিং, সেলস, আফটার সেলস সার্ভিসসহ সকল ক্ষেত্রে ব্রান্ড এন্ড ডিজাইনে সহায়তা প্রদান করেছেন।

 

>> প্রশিক্ষকদের মধ্যে আরেকজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের গ্রাফিক্স ডির্পাটমেন্টের ছাত্র এবং ফ্যাশন হাউজের সত্ত্বাধিকারী যার কাজই হলো ডিজাইন ও ক্রিয়েটিভিটি নিয়ে। তিনি বিশেষ করে লোগো ডিজাইনে এক্সপার্ট।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may also like

IDOL Focus Campus IDOL Recruitment

Opportunity to work with IDOL Focus as Campus